গৃহকর্মী আসবেন কাতার ভিসা কেন্দ্রের মাধ্যমে

বেসরকারি খাতের কর্মীদের পাশাপাশি এবার গৃহকর্মীরাও কাতার ভিসা কেন্দ্রের মাধ্যমে এ দেশে আসবেন। কাতার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং প্রশাসনিক উন্নয়ন, শ্রম ও সামাজিক মন্ত্রণালয় যৌথভাবে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে। ২৩ জুলাই দোহায় এক সেমিনারে এই সিদ্ধান্তের কথা প্রকাশ করা হয়।
ইতিমধ্যে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার বেশ কয়েকটি দেশে কাতারের ভিসা কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। 
মন্ত্রণালয়ের ঘোষণায় বলা হয়, কাতারে যারা গৃহকর্মী রাখতে চান, তারা প্রথম ধাপে কোনো একটি রিক্রুটিং এজেন্সিকে দায়িত্ব অর্পণ করবে। পরে সেই এজেন্সি সংশ্লিষ্ট দেশে স্থাপিত কাতার ভিসা কেন্দ্রের মাধ্যমে গৃহকর্মীকে এ দেশে আনার সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে।

কাতার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীন ভিসা সাপোর্ট কেন্দ্রের প্রধান পরিচালক মেজর আবদুল্লাহ আল মুহান্নাদি ও কাতার শ্রম মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা মুহাম্মদ আলি আলমির সেমিনারে বক্তৃতা করেন। কাতারে বিভিন্ন রিক্রুটিং এজেন্সির কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
আলমুহান্নাদি বলেন, কাতারি নাগরিক ও কাতারে বসবাসরত যে কেউ গৃহকর্মী রাখতে চাইলে প্রথমে যেকোনো একটি রিক্রুটিং এজেন্সিকে দায়িত্ব দিতে হবে। পরে এই এজেন্সি ওই গৃহকর্মীর দেশে অবস্থিত কাতার ভিসা কেন্দ্রের মাধ্যমে অন্যান্য প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে।
সেমিনারে জানানো হয়, ঈদুল আজহার ছুটি শেষ হওয়ার পর মধ্য আগস্ট থেকে এই কার্যক্রম শুরু হবে। গৃহকর্মী আনতে আগ্রহী নাগরিক বা অভিবাসীরা নিজেদের মোবাইলে মিতরাশ-২ অ্যাপ অথবা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে রিক্রুটিং এজেন্সিকে দায়িত্ব দিতে পারবেন। এর পরের ধাপে সংশ্লিষ্ট রিক্রুটিং এজেন্সি ওই গৃহকর্মীর বায়োমেট্রিক নিবন্ধন, চুক্তিপত্র স্বাক্ষর ও স্বাস্থ্য পরীক্ষাসহ অন্যান্য প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে।
কাতার শ্রম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কাতারে যেসব রিক্রুটিং এজেন্সি (জনশক্তি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান) রয়েছে, সেগুলোর কার্যক্রম ও পেশাদারি মূল্যায়ন করে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে শ্রেণিবিন্যাস করা হয়েছে। যাতে সবচেয়ে ভালো প্রতিষ্ঠানগুলো প্রথম শ্রেণিতে থাকে এবং কাতারে বিদেশ থেকে কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া স্বচ্ছ ও সুন্দর হয়।
বর্তমানে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা ও সিলেটে কাতার ভিসা কেন্দ্র খোলা হয়েছে। ঢাকায় বাংলামোটর এলাকায় রূপায়ণ ট্রেড সেন্টারের ১২ তলায় ও সিলেটে শাহজালাল হাউজিং এস্টেটে ডি ব্লকে সৈয়দ প্লাজায় এই দুটি ভিসা কেন্দ্র অবস্থিত। বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও নেপালে এ ধরনের ভিসা কেন্দ্র চালু করেছে কাতার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *